Awards


চট্টগ্রাম সমিতিঢাকা

বর্ষে বর্ষে ‘চট্টগ্রাম সমিতি পদক’
পেয়েছেন যাঁরা তাদের তালিকা নিম্নরুপ :

 

 ২০১৮ সালে চট্টগ্রাম সমিতি পদক পেলেন যাঁরা

প্রফেসর ডা. সায়েবা আখতার

 

কল্যাণী ঘোষ

কনক চাঁপা চাকমা

ড. মং সানু মারমা

ড. মাকসুদুল আলম

: মাতৃমৃত্যু হ্রাসকরণে অবদানের জন্য

 

: শিল্পী হিসেবে মুক্তিযুদ্ধে অবদানের জন্য

: চিত্রশিল্পে অবদানের জন্য

: ইলিশের জীবন রহস্য উদ্ঘাটনে অবদানের জন্য

: পাটের জীবন রহস্য উদ্ঘাটনে অবদানের জন্য

২০১৬ সালে চট্টগ্রাম সমিতি পদক পেলেন যাঁরা

প্রফেসর ইমেরিটাস ড. আলমগীর মোহাম্মদ সিরাজুদ্দীন

 

অধ্যাপক মমতাজ উদ্দীন আহমদ

আবুল মোমেন

রেজাউল হক চৌধুরী মুশতাক

তামিম ইকবাল

: ইতিহাস গবেষণা

 

: নাট্যচর্চা, অভিনয়

: সাংবাদিকতা ও প্রবন্ধ রচনায়

: সমাজকল্যাণ

: ক্রীড়া ক্ষেত্রে অসামান্য অবদানের জন্য

২০১৫ সালে চট্টগ্রাম সমিতি পদক পেলেন যাঁরা

ইমেরিটাস অধ্যাপক আনিসুজ্জামান

 

ড. হোসেন জিল্লুর রহমান

অধ্যাপক (ডা.) রবিউল হোসেন

এ.এম.এম. নাসরুল্লাহ খান

মোঃ জাহাঙ্গীর আলম খান

: ভাষা-সাহিত্য ও ইতিহাস-ঐতিহ্য বিষয়ে গবেষণা

 

: শিক্ষা-অর্থনীতি এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে গবেষণা

: জাতীয় পর্যায়ে চক্ষু চিকিৎসায়

: জনপ্রশাসন

: সমাজকল্যাণ

২০১৪ সালে চট্টগ্রাম সমিতি পদক পেলেন যাঁরা

প্রফেসর ড. মাহমুদ শাহ্ কোরেশী

 

প্রফেসর জামাল নজরুল ইসলাম

ইঞ্জিনিয়ার চৌধুরী মোহাম্মদ মহসীন

মোহাম্মদ আইয়ুব বাচ্চু

আকরাম খান

: শিক্ষা ও সাহিত্য

 

: বিজ্ঞান ও গবেষণা

: জনপ্রশাসন ও সমাজসেবা

: সঙ্গীত

: ক্রীড়া

২০১২ সালে চট্টগ্রাম সমিতি পদক পেলেন যাঁরা

মরহুম আবদুল খালেক ইঞ্জিনিয়ার

 

বিচারপতি মোহাম্মদ ফজলুল করিম

আবদুল গফুর হালি  (৮৩)

সুকুমার বড়–য়া

মোঃ আবু সোলায়মান চৌধুরী

                                                              

: সংবাদপত্রসেবী

 

: সমাজসেবা

: শিল্প ও সংস্কৃতি

: সাহিত্য

: জনপ্রশাসণ

২০১১ সালে চট্টগ্রাম সমিতি পদক পেলেন যাঁরা

প্রফেসর মনসুর মুসা

 

অধ্যাপক শফিউল আলম

মোঃ আবদুল মোবারক

জাফর আলম

এম. এন. আখতার

: ভাষা গবেষণায়

 

: শিক্ষা ক্ষেত্রে

: জনপ্রশাসনে

: অনুবাত সাহিত্যে

: সঙ্গীত সাধনায়

২০১০ সালে চট্টগ্রাম সমিতি পদক পেলেন যাঁরা

আলহাজ্ব জহুর আহমদ চৌধুরী

 

শ্যাম সুন্দর বৈষ্ণব

মুহম্মদ নুরুল হুদা

মিনহাজুল আবেদীন নান্নু

: সমাজসেবা

 

: সঙ্গীত সাধনা

: সাহিত্য

: ক্রীড়া

২০০৯ সালে চট্টগ্রাম সমিতি পদক পেলেন যাঁরা

ইঞ্জিনিয়ার আফছার উদ্দিন আহমদ

 

মোঃ আজিজুল হক চৌধুরী

মোহাম্মদ ইউসুফ চৌধুরী

বিপ্লবী বিনোদন বিহারী চৌধুরী

অধ্যক্ষ প্রতিভা মুৎসুদ্দি

সৈয়দ আহমদুল হক

: শিক্ষা বিস্তার ও সমাজ সেবায়

 

: শিক্ষা বিস্তার ও সমাজ সেবায়

: সংবাদপত্র শিল্পে অবদান

: স্বাধীনতা সংগ্রামী

: শিক্ষা বিস্তার

: সূফীতত্ত্বের গবেষণা

২০০৬ সালে চট্টগ্রাম সমিতি পদক পেলেন যাঁরা

অধ্যাপক আবুল ফজল

 

ড. আহমদ শরীফ

আবদুস সালাম

রফিকুল ইসলাম

কে এম শিহাব উদ্দীন

: সাহিত্য (মরণোত্তর)

 

: গবেষণা ও শিক্ষা (মরণোত্তর)

: ২১ ফেব্রুয়ারীকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ঘোষণায় অবদান

: আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ঘোষণায় অবদান

: কূটনীতিক হিসেবে মুক্তিযুদ্ধে বিশেষ অবদান

২০০৫ (মার্চসালে চট্টগ্রাম সমিতি পদক পেলেন যাঁরা

কবিয়াল রমেশ শীল

 

অধ্যক্ষ নূতন চন্দ্র সিংহ

মাহ্বুব-উল আলম

প্রফেসর কামাল উদ্দিন আহমেদ

: লোকসঙ্গীত (মরণোত্তর)

 

: সমাজসেবা (মরণোত্তর)

: সাহিত্য (মরণোত্তর)

: বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

২০০৫ (ডিসেম্বরসালে চট্টগ্রাম সমিতি পদক পেলেন যাঁরা

অধ্যাপক আসহাবউদ্দীন আহমদ

 

প্রফেসর ইমেরিটাস ড. আব্দুল করিম

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী

কবরী সরওয়ার

: রাজনীতি

 

: শিক্ষা

: সমাজসেবা

: সংস্কৃতি

২০০৩ সালে চট্টগ্রাম সমিতি পদক পেলেন যাঁরা

প্রফেসর ড. মুহাম্মদ ইউনুস

 

মাহবুব-উল-আলম চৌধুরী

অধ্যাপক মোহাম্মদ খালেদ (মরণোত্তর)

আবদুল হক চৌধুরী (মরণোত্তর)

সাবিহ-উল-আলম

আবু তাহের পুতু (মরণোত্তর)

শেফালী ঘোষ

মির্জা আবু আহমেদ (মরণোত্তর)

আরশাদ আজিজ কোরেশী

এডভোকেট বদরুল হক খান (মরণোত্তর)

 

২০০২ সালে চট্টগ্রাম সমিতি পদক পেলেন যাঁরা

আদালত খান (মরণোত্তর)

 

আবদুল গনি চৌধুরী (মরণোত্তর)

এডভোকেট আব্দুল জব্বার বিএল (মরণোত্তর)

অধ্যাপক আবুল মনসুর ফয়জুল কবির (মরণোত্তর)

সৈয়দ এহসানুল হক (মরণোত্তর)

এখলাসুর রহমান চৌধুরী

কাজী মাজাহারুল হক (মরণোত্তর)

গোলাম রহমান চৌধুরী (মরণোত্তর)

খান বাহাদুর ফরিদ আহমদ চৌধুরী (মরণোত্তর)

নুর আহমদ চেয়ারম্যান (মরণোত্তর)

শেখ মুজিবুল হক (মরণোত্তর)

ডক্টর মাহফুজুল হক (মরণোত্তর)

এম এম মুনসেফ আলী

ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন

 

২০০০ সালে চট্টগ্রাম সমিতি পদক পেলেন যাঁরা

ডা. আবদুল লতিফ (মরণোত্তর)

 

এডভোকেট আহমেদ সোবহান (মরণোত্তর)

এম এ সাত্তার চৌধুরী

আলহাজ্ব মোহাম্মদ ইসহাক

ইকবালুর রহমান (মরণোত্তর)

চিফ জাস্টিস ইমাম হোসেন চৌধুরী (মরণোত্তর)

প্রফেসর খলিলুর রহমান (মরণোত্তর)

খান সাহেব সৈয়দ জাকের হোসেন (মরণোত্তর)

জালাল আহমেদ (মরণোত্তর)

খান বাহাদুর ফজলুল কাদের (মরণোত্তর)

মোহাম্মদ ফেরদাউস খান

আলহাজ্ব ফজলুছ ছাত্তার

মাহবুব আহমেদ চৌধুরী (মরণোত্তর)

অধ্যাপক এবিএম সুলতানুল আলম চৌধুরী (মরণোত্তর)

সৈয়দ মোস্তফা জামাল

 

১৯৯৯ সালে চট্টগ্রাম সমিতি পদক পেলেন যাঁরা

ড. আতাউল হাকিম (মরণোত্তর)

 

প্রিন্সিপাল আবুল কাসেম (মরণোত্তর)

আমানত খান (মরণোত্তর)

আহামেদ হোসাইন (মরণোত্তর)

এডভোকেট ইউ এন সিদ্দিকী (মরণোত্তর)

ড. মুহাম্মদ এনামুল হক (মরণোত্তর)

খান বাহাদুর মোঃ ইব্রাহিম (মরণোত্তর)

ছিদ্দিক আহমেদ চৌধুরী (মরণোত্তর)

নজীর আহমেদ চৌধুরী (মরণোত্তর)

এডভোকেট নুরুল হক চৌধুরী (মরণোত্তর)

বাদশা মিয়া চৌধুরী (মরণোত্তর)

মওলানা মনিরুজ্জামান ইসলামাবাদী (মরণোত্তর)

ড. সানাউল্লাহ পি এইচ ডি. বার-এট-ল (মরণোত্তর)

আলহাজ্ব সোলায়মান চৌধুরী (মরণোত্তর)

এডভোকেট এস এম মোফাখখর (মরণোত্তর)

 

১৯৯৭ সালে চট্টগ্রাম সমিতি পদক পেলেন যাঁরা

অলি আহমদ, বীর বিক্রম, এমপি

 

ডাঃ আনোয়ার হোসেন (মরণোত্তর)

এ এফ এম ইউসুফ (মরণোত্তর)

এ কে এম আহসান

এ কে খান (মরণোত্তর)

এ এইচ এম নুরুল ইসলাম চৌধুরী

মেজর জেনারেল এম আই করিম (অব.)

এম আর সিদ্দিকী (মরণোত্তর)

ইসহাক চৌধুরী (মরণোত্তর)

মোহাম্মদ খালেদ

জামাল উদ্দিন আহমদ

জাতীয় অধ্যাপক ডা. নুরুল ইসলাম

মোঃ মজহারুল কুদ্দুস

খানে আলম খান

এস এম ওয়ালী মিঞা মাস্টার